1. newsiqbalcox@gmail.com : Somoy Bangla : Somoy Bangla
রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১০:২৪ পূর্বাহ্ন

মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে সাবেক ইউপি সদস্য সাইফুল ইসলামের স্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন

ডেস্ক নিউজ
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ১৩ অক্টোবর, ২০২২
  • ৬০ ভিউ সময়

 

নিজস্ব প্রতিবেদক

কক্সবাজার উখিয়া উপজেলার হলোদিয়া পালং ইউনিয়নের মধ্যম পাগলির বিল এলাকায় মিথ্যা মামলা থেকে অব্যাহতি পাওয়ার জন্য এক সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বান্দরবানের সোনাইছড়ি ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ডের সাবেক ইউপি সদস্য সাইফুল ইসলামের স্ত্রী সুমি আক্তার (৩৮), তাঁর স্বামীর বিরুদ্ধে সাজানো মাদক মামলা থেকে রেহাই পেতে সংবাদ সম্মেলন করেছেন। তিনি এই মামলাকে মিথ্যা ও হয়রানিমূলক বলে দাবি করেন।

বুধবার (১২ অক্টোবর) বিকেল ৪ টার দিকে মধ্যম পাগলির বিল এলাকায় নিজ বাড়িতে তিনি এ সংবাদ সম্মেলন করেন। এ সময় তিনি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলেন ।
তার স্বামী সাইফুল ইসলাম (প্রকাশ) সাইফুল মেম্বারকে গত( ২৭ সেপ্টেম্বর ২২ ইং) তারিখে উখিয়া উপজেলার পালংখালী ইউনিয়ন থেকে আটক দেখিয়ে মাদক মামলায় কোর্টে প্রেরণ করা হয়। যা উখিয়া থানা মামলা নং ১০১৭/২২।

সুমি আক্তার বলেন, আমার স্বামী সাইফুল ইসলাম( প্রকাশ) সাইফুল মেম্বার (৪৪)
পিতা: মৃত আশ্রাফ আলী, স্হায়ী ঠিকানা : বটতলী ৬ নং ওয়ার্ড সোনাইছড়ি ইউপি, নাইক্ষ্যংছড়ি থানা, জেলা বান্দরবান। বর্তমান ঠিকানা : মধ্যম পাগলির বিল ২ নং ওয়ার্ড, হলোদিয়া পালং ইউপি, উখিয়া থানা জেলা কক্সবাজার।

গত (২৪ সেপ্টেম্বর ) সকাল ৭ টার দিকে মধ্যম পাগলির বিল নিজ বাড়ি থেকে সাদা পোশাক দারি অপরিচিত সিএনজি এবং মোটরসাইকেল যোগে ১০-১২ জন লোক এসে আমার স্বামীকে আটক করে বেধড়ক মারধর করে মাটিতে ফেলে দেয়।

আমাদের চিৎকার শুনে আশেপাশের লোক জন এসে পরিচয় জানতে চাইলে তারা সরকারি লোক বলে পরিচয় দেয়। তখন প্রতিবেশীরা তাকিয়ে দেখতে থাকে। ওই সময় সরকারি লোক পরিচয় দেওয়া লোকগুলা আমার বসত বাড়িতে ব্যপক তল্লাশি চালায়। তল্লাশিকালে অবৈধ কিছু না পাওয়া সত্ত্বেও আমার স্বামীকে হাতকড়া পড়িয়ে নিয়ে যায়। আমরা বিভিন্ন জায়গায় খোঁজ নিয়ে দেখি কোথাও খোঁজ পাওয়া যায়নি।

গত (২৮ সেপ্টেম্বর) জানতে পারি উখিয়া থানা পালংখালী ইউনিয়ন থেকে মাদক মামলায় আটক দেখিয়ে কক্সবাজার আদালতে প্রেরণ করেন। মূলত আমার স্বামীকে হলোদিয়া পালং মধ্যম পাগলির বিল নিজ বাড়ি থেকে সকাল ৭ টার দিকে স্থানীয়দের উপস্থিতে নিয়ে যাওয়া হয়। এসময় শত-শত এলাকাবাসী উপস্থিত ছিলেন। আমার স্বামীর নিকট ও বসতঘর থেকে অবৈধ কোন কিছু পাওয়া যায়নি বা উদ্ধার হয়নি।

কিন্তু গত ২৭ সেপ্টেম্বর ২২ ইং তারিখ ৫০ হাজার পিস ইয়াবাসহ পালং খালী ইউনিয়ন থেকে আটক দেখিয়ে আমার স্বামীকে উখিয়া থানায় সোপর্দ করা হয়। তিনি সাংবাদিকদের উদ্দেশ্য বলেন, প্রকৃতপক্ষে আমার স্বামীকে পালংখালী থেকে আটক করেনি। আমার স্বামীকে আটক করে নিয়ে যায় আমার বসত বাড়ি থেকে।

সুমি আক্তার বলেন, আমার স্বামী মাদকের সাথে কোন ধরনের জড়িত ছিল না তাই নিরপক্ষ ও সুষ্ঠু তদন্তপূর্বক আমার স্বামীকে মিথ্যা মামলা থেকে অব্যাহতি দেওয়ার জন্য প্রশাসনের কাছে আকুল আবেদন করছি।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরো বিভন্ন নিউজ দেখুন
© All rights reserved © 2021 somoybanglatv.com
Theme Customization By Monsur Alam