1. newsiqbalcox@gmail.com : Somoy Bangla : Somoy Bangla
বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ০৬:২৯ অপরাহ্ন

রাজশাহী শিক্ষাবোর্ডের ১৫ কর্মকর্তার পদোন্নতি স্থগিত

ডেস্ক নিউজ
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ২২ মার্চ, ২০২৩
  • ১০৯ ভিউ সময়

 

রাজশাহী ব্যুরো:

প্রধান রাজশাহী মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের ১৫ জন কর্মকর্তাকে পদোন্নতি দেওয়া হয়েছিল অবৈধভাবে। শিক্ষা মন্ত্রণালয় কর্মকর্তাদের এই পদোন্নতির আদেশ স্থগিত করেছে। এছাড়া পদোন্নতির পর এ পর্যন্ত তাদের গ্রহণ করা অতিরিক্ত অর্থ ফেরত দেওয়ার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

গত ৫ মার্চ শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের উপ-সচিব আক্তার উননেছা শিউলী এক চিঠিতে প্রথমে ছয়জন কর্মকর্তার পদোন্নতি স্থগিত করে তাদের উত্তোলিত অতিরিক্ত অর্থ ফেরত দেওয়ার নির্দেশ দেন। পরে ১৯ মার্চ আরও নয়জনের ব্যাপারে একই নির্দেশনা দিয়ে চিঠি ইস্যু করা হয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে। এই চিঠি সোমবার পেয়েছেন রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডেও চেয়ারম্যান ও সচিব।

এর আগে পরিদর্শন ও নিরীক্ষা অধিদপ্তরের এক তদন্তে রাজশাহী বোর্ডের ১৫ কর্মকর্তার পদোন্নতিতে গুরুতর অসঙ্গতির অভিযোগ উঠে আসে। দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) এবং মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের (মাউশি) আলাদা দুই চিঠি দেয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে ২০২১ সালের ২৩ থেকে ২৫ নভেম্বর পাঁচ সদস্যের তদন্ত কমিটি রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডে গিয়ে সরেজমিন অভিযোগ তদন্ত করেছেন।

তদন্ত কমিটিতে ছিলেন পরিদর্শন ও নিরীক্ষা অধিদপ্তরের পরিচালক অধ্যাপক অলিউল্লাহ মো. আজমতগীর, শিক্ষা পরিদর্শক আজিজুর রহমান, মনকিউল হাসনাত, হেমায়েত উদ্দীন এবং অডিট কর্মকর্তা চন্দন কুমার দেব। গত বছরের জানুয়ারিতে এই কমিটি দুদক ও মাউশিতে এ প্রতিবেদন জমা দেয়। প্রতিবেদনে এই ১৫ কর্মকর্তার পদোন্নতি স্থগিত ও গ্রহণ করা অতিরিক্ত অর্থ ফেরত নেওয়ার সুপারিশ করা হয়। তদন্ত প্রতিবেদন মন্ত্রণালয়ে যাওয়ার পরে পদোন্নতি স্থগিত ও গ্রহণ করা অতিরিক্ত অর্থ ফেরত নেওয়ার সিদ্ধান্ত দেওয়া হয়।

তদন্ত প্রতিবেদন অনুযায়ী, রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডের সাবেক দুই চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবুল কালাম আজাদ ও অধ্যাপক ড. মোকবুল হোসেনের কার্যকালে পদোন্নতির এসব অনিয়ম ঘটে। দু’দফায় ১৫ কর্মকর্তাকে পদোন্নতি দিতে নানা অনিয়ম করেন তারা। বোর্ডের সিলেকশন কমিটিও নিয়ম না মেনে তাদের পদোন্নতির সুপারিশ করেছিল বলে তদন্তে উঠে আসে।

২০১৭ সালে প্রথমে নয়জন সপ্তম গ্রেড থেকে ষষ্ঠ গ্রেডে পদোন্নতি পান। এরা হলেন- উপ-কলেজ পরিদর্শক নেসার উদ্দিন আহমেদ, উপ-বিদ্যালয় পরিদর্শক মানিক চন্দ্র সেন, সাবেক উপ-সচিব (প্রশাসন) ওয়ালিদ হোসেন, উপ-পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক (সনদ ও রেকর্ডস) মঞ্জুর রহমান খান, ক্রীড়া কর্মকর্তা লিটন সরকার, হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা শফিকুল ইসলাম, অডিট কর্মকর্তা সেলিনা পারভীন, উপ-পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক (মাধ্যমিক) জাহিদুর রহমান ও উপ-পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক (উমা) হোসনে আরা আরজু।

এদের পদোন্নতি দিতে সিলেকশন কমিটি ২০১৭ সালের ২১ এপ্রিল শুক্রবার বোর্ডের চেয়ারম্যানের কক্ষে ৪৮ জন উপযুক্ত কর্মকর্তার মৌখিক পরীক্ষা গ্রহণ করে। কমিটির সভাপতি ছিলেন বোর্ডের তৎকালীন চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবুল কালাম আজাদ। ৪৮ জনের মধ্যে কমিটি নয়জনকে পদোন্নতির সুপারিশ করলে ২০১৭ সালের ৯ জুলাই তাদের পদোন্নতি দেওয়া হয়।

কর্মকর্তাদের বার্ষিক গোপনীয় প্রতিবেদন, শিক্ষাগত যোগ্যতা এবং লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষার মাধ্যমে পদোন্নতি দেওয়ার নিয়ম থাকলেও তা মানা হয়নি। শুধু মৌখিক পরীক্ষার ভিত্তিতে নয়জনের পদোন্নতির তালিকাটি চূড়ান্ত করা হয়। ওই মেধাতালিকা থেকে ২০২০ সালের ১৫ জানুয়ারি বোর্ডের তৎকালীন চেয়ারম্যান মোকবুল হোসেন আরও ছয়জনকে পঞ্চম গ্রেডে পদোন্নতি দেন বিধি লঙ্ঘন করে।

তারা হলেন, উপ-পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক (জেএসসি) ফরিদ হাসান, উপ-পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক (স্ক্রিপ্ট) রুবী, উপ-সচিব (ভান্ডার) দুরুল হোদা, উপ-সচিব (প্রটোকল) খোরশেদ আলম, উপ-বিদ্যালয় পরিদর্শক (রেজি) মো. নুরুজ্জামান ও লাইব্রেরি অ্যান্ড ইনফরমেশন ডকুমেন্টেশন কর্মকর্তা সুলতানা শারমিন আক্তার। প্রথমে বিতর্কিত ওই মেধাতালিকা থেকে ১ থেকে ৯ নম্বর ক্রমিকের কর্মকর্তাদের পদোন্নতি দেওয়া হলেও দ্বিতীয় পদোন্নতির ক্ষেত্রে এই ক্রমিকও অনুসরণ করা হয়নি। দ্বিতীয় দফায় পদোন্নতি দেওয়া হয়েছিল ক্রমিকের ১২, ১৩, ২০, ২১, ২৫ ও ৩৮ নম্বরে থাকা কর্মকর্তাকে।

এই ছয়জনের ব্যাপারে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের চিঠিতে শিক্ষা বোর্ডকে বলা হয়েছে, এদের পদোন্নতির আদেশ স্থগিত করে তার প্রমাণ মন্ত্রণালয়ের এই বিভাগে পাঠাতে হবে। পদোন্নতি পাওয়ার পরে এই কর্মকর্তারা পঞ্চম গ্রেডে বেতন গ্রহণ করে থাকলে গৃহীত অতিরিক্ত অর্থ তাদের কাছ থেকে আদায় করে শিক্ষা বোর্ডের কোষাগারে জমা করতে হবে।

রাজশাহী মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের সচিব মো. হুমায়ুন কবীর বলেন, চিঠির পরিপ্রেক্ষিতে প্রশাসনিক যে পদক্ষেপ সেটা আমরা গ্রহণ করব। সরকারি নির্দেশ কার্যকরে কোনো অবহেলার সুযোগ নেই

শেয়ার করুন

আরো বিভন্ন নিউজ দেখুন
© All rights reserved © 2021 somoybanglatv.com
Theme Customization By Monsur Alam