1. newsiqbalcox@gmail.com : Somoy Bangla : Somoy Bangla
বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ০৬:১৬ অপরাহ্ন

আলীরজাহালে কৃষি বিভাগের জায়গায় জোরপূর্বক অনুমোদনহীন স্থাপনা নির্মান

ডেস্ক নিউজ
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ১২ অক্টোবর, ২০২২
  • ৪৬৫ ভিউ সময়

সংবাদ সংগ্রহে গেলে সাংবাদিকদের সাথে দূর্ব্যবহার

নিজস্ব প্রতিবেদক ঃ
ককসবাজার শহরের আলীরজাহাল ষ্টেষনে প্রধান সড়কের পাশে বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশন (বিএডিসি) র জায়গা দখল করে জোরপূর্বক স্থাপনা নির্মাণ করার অভিযোগ ওঠেছে স্থানীয় শফিক নামক এক ব্যাক্তির বিরুদ্ধে। বিএডিসি কতৃপক্ষ বারবার বাধা দিলেও অনেকটা গায়ের জোরে এবং ক্ষমতাসীন দলের এক শীর্ষ নেতার নাম ব্যবহার করে এমন অবৈধ স্হাপনা নির্মান করে যাচ্ছে বলে জানা গেছে। এছাড়া সংবাদ সংগ্রহ করতে গেলে সাংবাদিকদের উপরও হামলা করতে তেড়ে আসে শফিক এমন অভিযোগ ভুক্তভোগী সাংবাদিকদের। এ ব্যাপারে এই অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ বিএডিসি জমি উদ্ধারে জেলা প্রশাসক বরাবর অফিসিয়াল চিঠি দিয়েছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট কর্মকতা।তাই এহেন ক্ষমতার দম্ভ ও অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে কক্সবাজার উন্নয়ন কতৃপক্ষ হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন স্থানীয়রা।

সরেজমিনে দেখা যায় আলীরজাহাল ষ্টেশনে প্রধান সড়কের পাশে ত্রিপলের ঘেরা দিয়ে দিনদুপুরে বাংলাদেশের কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশন বিএডিসির জায়গা জোরপূর্বক দখল করে স্থাপনা নির্মাণ করে যাচ্ছে শফিক নামে এক যুবক। অথচ তার নির্মাধীন ভবনটি অবৈধ এবং ককসবাজার উন্নয়ন কতৃপক্ষ থেকে কোন ধরনের অনুমতি নেয়া হয়নি। বলতে গেলে অনেকটা গায়ের জোরে এবং ক্ষমতাসীন দলের এক শীর্ষ নেতার নাম ব্যবহার করে এমন সরকারী জায়গা দখল করে স্থাপনা নির্মাণ করে যাচ্ছে বলে অভিযোগ রয়েছে। এবিষয়ে বিএডিসি র কর্মকর্তারা জানান জায়গাটি বিএডিসি র অর্থাৎ বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশনের। তথা সরকারী জায়গা। কিন্তু শফিক গং স্থানীয় ও প্রভাবশালী হওয়ায় তারা আইনকে তোয়াক্কা না করে এমন অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ করে যাচ্ছে। তাদেরকে একাধিকবার নিষেধ করা হয়েছিল। তারা উক্ত জায়গাটি তাদের নিজেদের বলে দাবী করে এমন স্থাপনা নির্মাণ অব্যহত রেখেছে। বিএডিসির কর্মকতারা আরো জানান, এ বিষয় কার জায়গা কতটুকু তা নির্ধারণে জেলা প্রশাসক বরাবরে অফিসিয়াল চিঠি দিয়ে সরকারী সার্ভেয়ার চাওয়া হয়েছে এবং সার্ভেয়ার না আসা পর্যন্ত স্থাপনা নির্মাণ না করার জন্য শফিক গংকে একাধিক বার নিষেধ করা হয়েছে। তারা তা না মেনে গায়ের জোরে এমন স্থাপনা নির্মান করায় পুনরায় জেলা প্রশাসক বরাবরে চিঠি লিখে সার্ভেয়ার চাওয়া হয়েছে। সার্ভেয়ার এসে জায়গা পরিমাপ ও নির্ধারণের আগে এমন অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ আইনের প্রতি বৃদাংগুল দেখানো ছাড়া আর কিছুই নয়। এচাড়া এ বিষয়ে সংবাদ সংগ্রহ করতে গেলে জেলা পর্যায়ের ক্ষমতাসীন দলের এক শীর্ষ নেতার নাম ব্যবহার করে সাংবাদিকদেরও গাল মন্দ করেছে বলে জানা গেছে।

শেয়ার করুন

আরো বিভন্ন নিউজ দেখুন
© All rights reserved © 2021 somoybanglatv.com
Theme Customization By Monsur Alam