উপেক্ষিত প্রানের দাবী, বিক্ষুব্ধ কক্সবাজারবাসী

স.ম ইকবাল বাহার চৌধুরী ●
  • আপডেট সময় : শনিবার, ৬ জুলাই, ২০১৯

লবন বোর্ড হচ্ছেনা, যেই তিমিরে লবন চাষীরা সেই তিমিরেই থাকবে।
লবন বোর্ড আর হচ্ছেনা। কক্সবাজারবাসীর প্রানের দাবী বার বার উচ্ছারিত হলেও তা নাকচ করেছে কক্সবাজারে আগত দু‘মন্ত্রী -প্রতিমন্ত্রী। লবন চাষী, লবন মিল মালিক সমিতির নেতৃবৃন্ধ, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্ধ এমনকি কক্সবাজার ২ ও ৩ আসনের সংসদ সদস্যদের জোরালো দাবী ছিল লবন শিল্পের জন্য লবন বোর্ড গঠন করে লবন শিল্পকে এবং তার সাথে জড়িত চাষী ও ব্যবসায়ীদের বাঁচাতে। এসময় উপস্থিত সবারই আশার সঞ্চার হয় সভার প্রধান অতিথি গনপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের শিল্প মন্ত্রনালয়ের মাননীয় মন্ত্রী নুরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন এমপি‘র মুখ থেকে একটি পজেটিভ বক্তব্য আসবে। কিন্তু না, সবার আশা আর কক্সবাজারবাসীকে হতাশ করেছে লবন বোর্ডের দরকার নেই বক্তব্য দিয়ে। গতকাল বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প করপোরেশন (বিসিক) এর আয়োজনে ‘লবণ চাষ ও আয়োডিনযুক্তকরণঃ সার্বজনীন আয়োডিনযুক্ত লবণ’ শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্টিত হয়। কক্সবাজার শহরের কলাতলীর তারকামানের হোটেলের কনফারেন্স হলে শুক্রবার (৫ জুলাই) বেলা সাড়ে ১১টায় অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন এমপি। তিনি বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য দেওয়া শিল্প প্রতিমন্ত্রী কামাল আহমেদ মজুমদার এমপি‘র বক্তব্যে লবন বোর্ড করার প্রয়োজন নাই বক্তব্যকে সমর্থন করে বলেন, ২০১৮-১৯ অর্থ অর্থবছরে লবণের চাহিদা ১৬.৫৭ লক্ষ মেট্রিক টন এবং উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা ১৮ লক্ষ মেট্রিক টন। উৎপাদন হয়েছে ১৮.২৪ লক্ষ মেট্রিক টন। চাহিদা ও লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে বেশি লবণ উৎপাদন হওয়ায় বর্তমানে দেশে লবণের কোন ঘাটতি নেই। তাই অমাদনির কোন প্রয়োজন নাই। তিনি বলেন, এই সরকার লবণ শিল্পবান্ধব সরকার। প্রান্তিক চাষিদের কথা মাথায় রেখে নীতিমালা প্রনয়ন করা হবে। বাংলাদেশ থেকে লবণ রপ্তানির সময় এসেছে। সরকারকে মিথ্যা তথ্য দিয়ে কোন চক্রকে আমদানি করতে দেয়া হবেনা। তিনি আরো বলেন, ঈদুল আযহায় চামড়া শিল্পে লবণ ব্যবহারের পরও সারা বছর উদ্বৃত্ত থাকবে। আমদানির কোন প্রয়োজন নাই।
মাতারবাড়ীর চাষী ও লবন ব্যবসায়ী ওয়াশিম সিকদার বলেন,দীর্ঘদিনের দাবী লবন বোর্ড বিষয়ে মন্ত্রীর বক্তব্যে আমরা হতাশ। এত দিন পর এসে সরকারের এমন বক্তব্য আমরা আশা করিনি। এখনো আশা করি ৬০ হাজার প্রান্তীক চাষীর ভবিষ্যৎ নিয়ে চিনিমিনি না খেলে সরকার পনরায় লবন বোর্ড নিয়ে পজেটিভ সিদ্ধন্ত নিবে। এ ব্যাপারে চকরিয়ার লবন ব্যবসায়ী আনিছুর রহমান বলেন, আমাদের দাবী লবন বোর্ড নিয়ে সরকারের পক্ষ থেকে যে বক্তব্য এসেছে তা গ্রহনযোগ্য নয়।
বিসিক চেয়ারম্যান (অতিরিক্ত সচিব) মোঃ মোশতাক হাসান এনডিসির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি শিল্পপ্রতিমন্ত্রী কামাল আহমেদ মজুমদার এমপি বলেন, লবন বোর্ড করার প্রয়োজন নেই, বিসিকে লবনের জন্য আলাদা লবন ডিভিশন করা হয়েছে। তারাই লবনের দেখভাল করবে। আর আমদানি নির্ভরশীল না হয়ে দেশে গুণগত মানসম্পন্ন উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে শিল্প মন্ত্রণালয়ের আওতায় বিসিকের মাধ্যমে নানামুখী কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়েছে। ইউনিসেফের সহায়তায় লবণ চাষের নতুন প্রযুক্তি পাইলটিং কার্যক্রম বাস্তবায়িত হচ্ছে। তিনি আরো বলেন, লবন নীতিমালা তৈরীর কাজ চলছে। আর পরিত্যক্ত জমি লবন চাষীদের লীজ দিয়ে লবন চাষের উপযোগী করে গড়ে তুলা হবে।
সভাপতির বক্তব্যে বিসিক চেয়ারম্যান (অতিরিক্ত সচিব) মোঃ মোশতাক হাসান এনডিসি বলেন, লবণ ডিভিশন যেহেতু করা হয়েছে, তারা সার্বক্ষনিক লবন চাষীদের পাষে থাকবে। আর লবন চাষীদের মধ্যস্বত্ত্বভোগীদের কাছ থেকে যাতে দাদন নিতে না হয় তার জন্য শুধু নামে মাত্র সার্বিস চার্জ নিয়ে ঋণ প্রদান করা হবে। দেশে এখন ১০ লক্ষ মেঃটন লবন মজুদ আছে তাই লবন আমদানী করতে হবেনা। যেহেতু সামনে তিন মাস পর আবার লবন মৌসুম শুরু হবে।
অনুষ্ঠানে সংরক্ষিত নারী আসনের সদস্য কানিজ ফাতেমা আহমেদ, কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক সরওয়ার কামাল, বিসিক কক্সবাজারের উপমহাব্যবস্থাপক সৈয়দ আহামদ, বিসিকের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, উন্নয়ন সহযোগী সংস্থা প্রতিনিধি এবং লবণ মিল মালিক, চাষিরা উপস্থিত ছিলেন। যৌথ সঞ্চালনায় ছিলেন মোঃ ইদ্রিস আলী ও বেতারের সংবাদ পাঠিকা রোজিনা আকতার।
শিল্পমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করে লবণ আমদানি বন্ধের দাবি তুলে কথা বলেন- চকরিয়া উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি রেজাউল করিম, কুতুবদিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ নেতা এডভোকেট ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী, ইসলামপুর লবণ মিল মালিক সমিতির সভাপতি শামসুল আলম আজাদ, টেকনাফ উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও লবণ চাষী সমিতির সভাপতি শফিক মিয়া, বাংলাদেশে লবণ চাষী কল্যাণ পরিষদের সাধারণ সম্পাদক কায়ছার ইদ্রিস, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি ও লবণ মহাল কমিটির সদস্য রহিম উদ্দিন, বাংলাদেশ লবণ মিল মালিক সমিতির সভাপতি নুরুল কবির, লবণ মিল মালিক সমিতির নেতা রঈস উদ্দিন, ইসলামপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মিল মালিক মাস্টার আবদুল কাদের।

এই সংবাদটি শেয়ার করার দায়িত্ব আপনার

এই ক্যাটাগরীর অন্যান্য সংবাদ সমূহ

কক্সবাজার বাজারঘাটায় উর্মি বিউটি পার্লারে অভিযান ২০ হাজার টাকা জরিমানা

মোহাম্মদ আবু তৈয়ব, কক্সবাজারঃ

কক্সবাজার কক্সবাজারে বাজারঘাটায় উর্মি বিউটি পার্লারে অভিযান ২০ হাজার টাকা জরিমানা কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের নিয়মিত অভিযানের অংশ হিসেবে,৩০ সেপ্টেম্বর সোমবার কক্সবাজার শহরের বাজারঘাটা এলাকায় ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান পরিচালিত হয়। উক্ত অভিযানকালে উর্মি বিউটি পার্লার নামে এক প্রতিষ্টানে প্রচুর নকল ও লেভেলবিহীন পণ্য পাওয়ায় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৫ অনুযায়ী ২০০০০ (বিশ হাজার টাকা) জরিমানা করা হয় এবং তাদেরকে ভবিষ্যতে এ ধরনের কাজ থেকে বিরত থাকার জন্য নির্দেশ প্রদান করা হয়। জেলা প্রশাসনের এ অভিযান অব্যাহত থাকবে

কক্সবাজার বাজারঘাটায় উর্মি বিউটি পার্লারে অভিযান ২০ হাজার টাকা জরিমানা

কক্সবাজার সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ ছাত্রলীগের দু’ গ্রুপে সংঘর্ষে আহত অন্তত ৫

স্টাফ রিপোর্টারঃ

কক্সবাজার সরকারী কলেজে সম্মেলন ও আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষে অন্তত পাচঁ আহত হয়েছে। আহতরা হলেন, শিমুল, খালেক, ইফতি ও শফিক। আজ রবিবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক জেলার এক শীর্ষ নেতা জানিয়েছেন, সম্মেলন ও আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক গ্রুপের মাঝে এইঘটনাটি ঘটে। আহতদের সরকারি হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। আহত শিমুল-ইফতি দুজনই কমার্স দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র ও সভাপতি গ্রুপের বলে জানা গেছে। দুজনের বাড়ি শহরের পিটি আই স্কুল এলাকায়। আহত অপর দুইজন খালেক ও শফিকের অবস্থা আশংকাজনক,দুজনই যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক বলে জানা গেছে।

কক্সবাজার সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ ছাত্রলীগের দু’ গ্রুপে সংঘর্ষে আহত অন্তত ৫